[english_date], [bangla_day]

৩ হাজার টাকার স্যালাইন স্ট্যান্ড ৬০ হাজার টাকা!

আপডেট: October 5, 2019

ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পর্দাকাণ্ডের খবর এখন পুরনো। শত আলোচনা-সমালোচনার পর এমন কাণ্ড থেমে নেই। স্বাস্থ্যখাতে সামনে যেসব বরাদ্দ পরিকল্পনা কমিশনে প্রস্তাব আকারে পেশ করা হচ্ছে সেখানেও থাকছে পুকুর চুরির ফাঁদ।

সম্প্রতি মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতাল ৫০ বেডেড ও জেলা সদর হাসপাতালে ১০ বেডেড কিডনি ডায়ালাইসিস সেন্টার স্থাপন উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনায় (ডিপিপি) তিন হাজার টাকার স্যালাইন স্ট্যান্ডের দাম প্রস্তাব করা হয়েছে ৬০ হাজার টাকা।

প্ররকল্পের আওতায় পরিকল্পনা কমিশনে এ প্রস্তাব করেছে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ।

এখানেই শেষ নয়, ওই ডিপিপিতে এমন আরও অনেক অসঙ্গতি রয়েছে। প্রকল্পের আওতায় আসবাবপত্র কেনা বাবদ ১০ কোটি ৮১ লাখ টাকা, যন্ত্রপাতি সংগ্রহ বাবদ ২২০ কোটি ১৬ লাখ টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে।

পরিকল্পনা কমিশন সূত্র জানায়, প্রচলিত সরকারি বিধি অনুসারে ৫০ কোটি টাকার ওপর কোনো প্রতিষ্ঠানের প্রকল্প পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানোর আগে প্রস্তাবিত স্থানের সম্ভাব্যতা (ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি) যাচাই করা বাধ্যতামূলক। কিন্তু সম্ভাব্যতা যাচাই ছাড়াই প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্য স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় থেকে পরিকল্পনা কমিশনের আর্থসামাজিক অবকাঠামো বিভাগে পাঠানো হয়। প্রকল্পের সরঞ্জাম ও যন্ত্রপাতি কেনার খরচের যে প্রস্তাবনাটি পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়েছে সেই প্রস্তাবে রয়েছে নানান অসঙ্গতি।

সম্প্রতি শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা কমিশনে এ প্রস্তাবিত প্রকল্পের ওপর পরিকল্পনা কমিশনের আর্থ-সামাজিক অবকাঠামো বিভাগের সভাকক্ষে সদস্য (সচিব) আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন