[english_date], [bangla_day]

ভোলায় ইসকন নিয়ে হিন্দু-মুসলমানদের আল্টিমেটামে উত্তেজনা, সংঘর্ষের আশংকা

আপডেট: August 21, 2019

ভোলা প্রতিনিধি :: ভোলায় বিরোধীয় জমিতে হিন্দু সংঘঠন ইসকনের কার্যক্রম বন্ধের দাবীতে তৌহিদি জনতার ব্যানারে আল্টিমেটাম দিয়েছে ইসলামি সংঘঠনের নেতারা। আপর দিকে শহরের সার্কুলার রোডে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব উদযাপনে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ ওই ইসলামী নেতাদের গ্রেপ্তারের দাবিতে পুলিশ সুপার ও জেলা প্রশাসক বরাবর স্বারক লিপি দিয়েছে হিন্দু নেতারা। এ ঘটনায় ভোলায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পরেছে।

হিন্দু নেতারা জানান, ভোলা শহরের সার্কুলার রোডে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব উদযাপনে বাঁধা দেয়ার অভিযোগে হিন্দু নেতারা বুধবার সকালে পরিস্থিতি জানতে ঘটনাস্থলে গেলে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সামনে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক গৌরাঙ্গ চন্দ্র দে কে লাঞ্ছিত করা হয়।
এ ঘটনায় তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ সভা করেছেন জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ। এছাড়া এর সাথে জড়িতদের বিচার দাবিতে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন তারা।

পাশাপাশি আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে এর সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়া হলে পুরো জেলাব্যাপী শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী ও দুর্গোউৎসব পালনের সকল আনুষ্ঠানিকতা বন্ধ করে দিবেন বলেও জানান তারা।

এ দিকে তৌহিদি জনতার ব্যানারে ইসলামী সংঘঠনের নেতারা জানান, ইসকনের নামে গড়ে উঠা হিন্দু উগ্রবাদী এ সংঘঠনের কার্যক্রম অনতি বিলম্বে বন্ধ করা না হলে হরতাল অবোরোধসহ বৃহত্তর আন্দেলনে যাবে তৌহিদী জনতা। তারা ইসকনের সকল কার্যক্রম বন্ধ না করলে আগামী কাল থেকেই কঠোর কর্মসুচীতে যাবেন বলে হুশিয়ারী দেন।

এই ঘটনায় ভোলায় হিন্দু ও মুসলিম নেতাদের একে অপরের আল্টিমেটামে চরম উত্তেজনার সৃষ্ট হয়েছে পুরো জেল জুড়ে। দ্রুত এই সমস্যার সমাধান না হলে পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকে যেতে পারে বলে আশংকা করছেন প্রশাসন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন